Friday, August 13, 2021

রাজার 'রাজ্যে' খুশি এনে দিল কালের কণ্ঠ শুভসংঘ

 

রাজা সরদার। কোন রাজ্যের রাজা নন। তবে একজন রাজমিস্ত্রী। ২০ বছর বাড়ি নির্মাণের কাজ করতেন। গেল দুবছর হলো স্টোক করে কাজ করার ক্ষমতা হারিয়েছেন। এখন এক ছেলে আর স্ত্রী নিয়ে সঞ্চয় ভেঙে টানাপোড়েন জীবন অতিবাহিত করছেন তিনি। বসুন্ধরা গ্রুপের খাদ্যসামগ্রী তুলে দেওয়া হয় তার হাতে। সহায়তা পেয়ে চোখে-মুখে স্বস্তির ছাপ পরেছে রাজার। এ যেনো রাজার মতো অনেক অসহায়ের অন্যরকম একটি আনন্দের দিন।

খাদ্য সহায়তা পেয়ে রাজা বলেন, 'দুই বছর ধইরা আমি কাম করবা পারি না। আগের কিছু জমানো ট্যাকা আছিলো তাও খাওয়া শেষ। এহন মাইনষেরতে চাইয়া খাই। আজকে আপনারা খাবার দিলেন আমাকের খুব উপকার হইলো। এটা দিয়ে আমরা তিনজন ১০ দিন খাবার পারব।'

খাদ্য সহায়তা পেয়ে হাসি ফুটেছে আফজাল বেপারি নামে আরেক উপকারভোগীর। তিনি বলেন, 'তোমাকের এই চাল, ডাল, আটা পাইয়া আমরা স্বামী-স্ত্রী ১৫-২০ দিন খাবার পারুম। আল্লা তোমাকের হায়াত দান করুক। শরীর সুস্থ রাখুক।'

আজ বৃহস্পতিবার তাদের মতো পাবনা জেলার ভাঙ্গুরা উপজেলায় ৩০০ অতিদরিদ্র পরিবারের মুখে হাসি ফুটিয়েছে কালের কণ্ঠ শুভসংঘ। বসুন্ধরা গ্রুপের সহায়তায় প্রত্যেক পরিবারকে ১০ কেজি চাল, তিন কেজি ডাল ও তিন কেজি আটা দেওয়া হয়।

এদিন সরকারি ভাঙ্গুরা ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ মাঠে স্বাস্থ্যবিধি মেনে এই খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করে শুভসংঘের সদস্যরা।

খাদ্যসামগ্রী বিতরণ কার্যক্রমে অংশ নিয়ে পৌর মেয়র গোলাম হাসনাইন রাসেল বলেন, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় প্রতিষ্ঠান বসুন্ধরা গ্রুপ ও কালের কণ্ঠের উদ্যোগে দেশব্যাপী খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হচ্ছে। এর অংশ হিসেবে আমাদের উপজেলায় ৩০০ দুস্থ পরিবারকে খাদ্য সহায়তা দিয়েছে। তারা করোনা ছাড়াও সব সময় মানুষের পাশে এগিয়ে আসে। মহামারী সময়েও তারা অক্সিজেন সরবরাহ করছে। আপনারা সবাই দোয়া করবেন তাদের জন্য। আল্লাহ যেনো বসুন্ধরা গ্রুপকে আরো সহায়তা করার তৌফিক দেয়।

খাদ্যসামগ্রী বিতরণ কার্যক্রমে আরো উপস্থিত ছিলেন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ফয়সাল বিন আহসান, জেলা পরিষদের সদস্য গুলশাহানারা লিপি, ভাঙ্গুরা ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের অধ্যক্ষ রফিকুল ইসলাম, কালের কণ্ঠ শুভসংঘের পরিচালক জাকারিয়া জামান, কালের কণ্ঠের পাবনা জেলা প্রতিনিধি আহমেদ উল হক রানা, শুভসংঘের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য শরীফ মাহ্দী আশরাফ জীবন, পাবনা জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক শেখ রাফসান যানী সজিবসহ নাইম খান, সুচিত্রা পূজা, স্বর্ণা, শাহেরা আক্তার উর্মি, ভাঙ্গুরা শাখার সাধারণ সম্পাদক জুয়েল রানা, শাহিবুল ইসলাম পিপুল, মোঃ রাকিবুল ইসলাম ,আহমেদ নিয়াজ মোরশেদ নিজাম, মেহেদী হাসান, রনি আহমেদ, আসাদুল, মামুন হাসান, মেহেদী হাসান, শাকিল, মামুন, সাকিব আহমেদ, শ্রী দুলাল কুমার দাস, শারমিন সুলতানা, মিতু, মায়া, আল শাহরিয়ার, শাহিবুল ইসলাম, তন্ময়, শাম্মি, তানজিলা, আরিফুল ইসলাম, গোলাম রব্বানী, লক্ষ্মী বিশ্বাস।


শেয়ার করুন