Tuesday, May 18, 2021

স্বামীর পরকীয়ায় বাধা, মারধরে স্ত্রীর আত্মহত্যা

ভাঙ্গুড়া (পাবনা) প্রতিনিধি

গত এক বছর ধরে হাসিনুর রহমান (৪৫) এলাকার এক নারীর পরকীয়া প্রেমে আসক্ত। অবৈধ সম্পর্কের কারণে সে স্ত্রী-সন্তানের প্রতি অনেকটা উদাসীন। শ্রমিকের কাজ করে যা আয় হয় সেটা দিয়ে তিনি পরকীয়া প্রেমিকের পেছনে ব্যয় করেন। এনিয়ে স্ত্রী রেখা খাতুনের (৪০) সঙ্গে অনেক আগে থেকেই সম্পর্কের অবনতি ঘটে হাসিনুরের। প্রতিবাদ করায় বহুবার স্বামীর মারধরের শিকার হতে হয় রেখাকে। একপর্যায়ে সোমবার দুপুরে স্বামীর হাতে মার খেয়ে অভিমান করে বাড়িতে থাকা কীটনাশক পান করে রেখা। এরপর কয়েক ঘন্টা জীবন যুদ্ধ করে হেরে যান তিনি। রেখার স্বামী হাসিনুর পাবনার ভাঙ্গুড়া পৌরশহরের উত্তর সারুটিয়া মহল্লার বাসিন্দা। মঙ্গলবার ময়নাতদন্ত শেষে রেখার মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের হয়েছে।



স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, প্রায় ১৬ বছর আগে হাসিনুরের সঙ্গে রেখার বিয়ে হয়। রেখার বাবার বাড়ি বগুড়া জেলার গাবতলী উপজেলায়। বর্তমানে এই দম্পতির তিনটি সন্তান রয়েছে। দিনমজুরের কাজ করে প্রায় ১৫ বছর ভালোই চলছিল তাদের সংসার। কিন্তু হঠাৎ করেই হাসিনুর এক বছর আগে এলাকার এক পর নারীর প্রতি আসক্ত হন। এরপর তাদের মধ্যে পরকীয়া প্রেম চলতে থাকে। এনিয়ে তখন থেকেই হাসিনুর ও রেখার মধ্য সম্পর্কের অবনতি ঘটতে শুরু করে। একসময় এ বিষয়টি হাসিনুর ও রেখার পরিবারের অন্য সদস্যরা জানতে পারে। বিষয়টি নিয়ে তারা সমাধানের চেষ্টা করে ব্যর্থ হন। একপর্যায়ে সোমবার এ ঘটনায় স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে আবারও ঝগড়াঝাটি হয় এবং রেখাকে মারধরের ঘটনা ঘটে। এরপর দুপুরে অভিমান করে রেখা বাড়িতে থাকা কীটনাশক পান করেন। অসুস্থ অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ভাঙ্গুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। অবস্থার অবনতি ঘটলে সেখান থেকে পাবনা সদর হাসপাতালে স্থানান্তর করেন কর্তৃপক্ষ। সদর হাসপাতালে পৌঁছালে কর্তব্যরত চিকিৎসক রেখাকে মৃত ঘোষণা করেন। বিকালে রেখার মরদেহ বাড়িতে নিয়ে আসলে সন্ধ্যায় পুলিশ লাশ উদ্ধার করে এবং মঙ্গলবার সকালে পাবনা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠান।


নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক হাসিনুরের এক প্রতিবেশী জানান, পরকীয়ার ঘটনায় দীর্ঘদিন ধরে পরিবারের মধ্যে ঝামেলা চলছিল। কিন্তু বাড়ির মুরুব্বিরা বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা করতে পারেনি। যে কারণে গৃহবধূ রেখাকে বলি হতে হলো। এ ঘটনার উপযুক্ত বিচার হওয়া দরকার।


ভাঙ্গুড়া থানার ডিউটি অফিসার উপ-পরিদর্শক (এসআই) তানভির হাসান আত্মহত্যার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, পারিবারিক কলহের কারণে গৃহবধু রেখা আত্মহত্যা করেছেন। এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের হয়েছে।


শেয়ার করুন