Thursday, December 17, 2020

ভাঙ্গুড়ায় আঞ্চলিক দ্বন্দ্বে ইউনিয়ন ভূমি অফিস নির্মাণ বন্ধ | ভাঙ্গুড়ার আলো

ভাঙ্গুড়া (পাবনা) প্রতিনিধি

পাবনার ভাঙ্গুড়া উপজেলার খানমরিচ ইউনিয়নের দুই অঞ্চলের মানুষের দ্বন্দ্বের কারণে ইউনিয়ন ভূমি অফিস নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। গত দুই সপ্তাহ ধরে ইউনিয়নের উত্তর দক্ষিণ অঞ্চলের মানুষ নিজ এলাকায় ভূমি অফিস নির্মাণের দাবিতে পাল্টাপাল্টি অনশন মানববন্ধন করায় নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দেয় উপজেলা প্রশাসন। এখন সার্বিক বিষয় বিবেচনা করে জেলা এবং উপজেলা প্রশাসন ইউনিয়ন ভূমি অফিস পুনঃনির্মাণের সিদ্ধান্ত নিবেন। এনিয়ে ইউনিয়নের দুই অঞ্চলের মানুষের মধ্যে সাময়িক উত্তেজনা বিরাজ করছে।

সূত্র জানায়, ২০১৯-২০ অর্থবছরে উপজেলার পৌর শহরের শরৎনগর বাজারে পৌর ভূমি অফিস খানমরিচ ইউনিয়নে ইউনিয়ন ভূমি অফিস নির্মাণের দরপত্র উপজেলা এলজিইডি অফিস। দুইটি ভূমি অফিসের আধুনিক ভবন নির্মাণ আসবাবপত্র সহ সার্বিক ব্যয় ধরা হয় এক কোটি টাকার কিছু উপরে। উপজেলার ইবনুল এন্ড বিশ্বাস ট্রেডার্স ভবন নির্মাণ কাজ পায়। এরপর গত মাস আগে পৌর ভূমি অফিসের ভবন নির্মাণ কাজ শুরু করে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান। কিন্তু খানমরিচ ইউনিয়নে ভবন নির্মাণের জায়গা নির্ধারণে হিমশিম খায় উপজেলা প্রকৌশল অফিস। প্রথমে ইউনিয়নের দক্ষিণ অঞ্চলের ময়দানদিঘী বাজারে ভূমি অফিস নির্মানের ভিত্তিপ্রস্থর স্থাপন করা হয়। কিন্তু এলাকাবাসীর বাধা মামলা করে ১৪৪ ধারা জারি করলে ভবন নির্মাণ কাজ শুরু করতে পারেনি ঠিকাদার। পরে উপজেলা প্রশাসন ইউনিয়নের উত্তর অঞ্চলের চন্ডিপুর বাজারে ভবন নির্মাণের জায়গা চূড়ান্ত করেন। গত দেড় মাস আগে স্থানীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মকবুল হোসেন ভবন নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেন। এরপর ঠিকাদার ওই স্থানে ভবন নির্মাণের কাজ শুরু করেন।

এদিকে ভবন নির্মাণ কাজ শুরু হওয়ার পর ইউনিয়নের দক্ষিণ অঞ্চলের ময়দানদিঘী বাজার কেন্দ্রিক প্রায় ২০ গ্রামের মানুষ একত্রিত হয়ে ভূমি অফিস পুনরায় ময়দানদিঘী বাজারে ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স ভবনের আশেপাশে স্থানান্তর দাবি জানান। প্রশাসন প্রথমে দাবি উপেক্ষা করলে ২০ গ্রামের হাজার হাজার মানুষ দফায় দফায় মানববন্ধন অনশন শুরু করেন। সর্বশেষ এলাকার মানুষ স্থানীয় সংসদ সদস্য উপজেলা পরিষদের সামনে অনশনে বসেন। পরে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বাকি বিল্লাহ ভবন নির্মাণের বিষয়টি পুনর্বিবেচনা করা হবে বলে আশ্বস্ত করে অনশনকারীদের মুখে পানি দিয়ে অনশন ভাঙান। এর একদিন পর চন্ডিপুর বাজারে ভূমি অফিস নির্মাণ কাজ চালু রাখার দাবিতে ইউনিয়নের উত্তর অঞ্চলের কয়েকটি গ্রামের শতাধিক মানুষ মানববন্ধন করেন। অবস্থায় গত সপ্তাহে উপজেলা প্রশাসন ভূমি অফিসের ভবন নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দেন। এরইমধ্যে উপজেলা জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা ভূমি অফিস পুনর্নির্মাণের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে সরেজমিনে এলাকাটি পরিদর্শন করেছেন।

বিষয়ে খানমরিচ ইউপি চেয়ারম্যান আছাদুর রহমান বলেন, ইউনিয়নের সব গ্রামের গুরুত্ব আমার কাছে একই রকম। তাই কোন এলাকায় ইউনিয়ন ভূমি অফিস হবে সেটা নিয়ে আমার কোন মন্তব্য নেই।

ভূমি অফিস নির্মাণ কাজ বন্ধের বিষয়টি নিশ্চিত করে উপজেলা প্রকৌশলী আফরোজা পারভীন বলেন, ইউনিয়নের দুই অঞ্চলের মানুষের আন্দোলনের কারণে ভূমি অফিস নির্মাণ কাজ বন্ধ রয়েছে। আঞ্চলিক দ্বন্দ্বের বিষয়টি জেলা প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের অবগত করা হয়েছে। এখন বিষয়টি জেলা প্রশাসন সংশ্লিষ্ট দপ্তর যাচাই-বাছাই করে সিদ্ধান্ত দিবেন।

ভাঙ্গুড়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বাকি বিল্লাহ বলেন, এলাকাবাসীর অনশন মানববন্ধনের কারণে ইউনিয়ন ভূমি অফিসের আধুনিক ভবন নির্মাণের স্থান নির্ধারণে পুনর্বিবেচনা করা হবে বলে আশ্বস্ত করা হয়েছে। এখন সার্বিক বিষয়টি অনুসন্ধান করে সিদ্ধান্ত নিবে সংশ্লিষ্ট দপ্তর।

ফটো ক্যাপশন : ভূমি অফিস নির্মাণ কাজ বন্ধ হওয়ার পরে এলাকা পরিদর্শনে আসেন জেলা উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা। 


শেয়ার করুন