Saturday, October 17, 2020

ভাঙ্গুড়ায় নাতির ধর্ষণের শিকার দাদি

ভাঙ্গুড়া (পাবনা) প্রতিনিধি

পাবনার ভাঙ্গুড়া বৃদ্ধ দাদিকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে নাতি জায়েদুর  ইসলামের (২৫) বিরুদ্ধে। গত বুধবার বিকালে উপজেলার অষ্টমনিষা ইউনিয়নের শাহানগর গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে ওইদিন রাতে পুলিশ ধর্ষিতার বাড়ি পরিদর্শন করেন। তবে ধর্ষক নাতির হুমকির কারণে ঘটনার পরপরই বৃদ্ধ দাদি বাড়ি থেকে আত্মগোপন করে। এতে অভিযোগ না থাকায় পুলিশ ধর্ষককে মোঃ জায়েদুর ইসলামকে আটক না করে চলে আসে। নিয়ে এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।

 

ধর্ষিতার এক ছেলে জানায়, বুধবার বিকালে বাড়িতে লোকজন না থাকার সুযোগে এক সন্তানের জনক মোঃ জায়েদুর ইসলাম তার আপন দাদিকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। পরে বৃদ্ধ দাদি বিষয়টি তার ছেলেদেরকে জানায়। সময় ছেলেরা বিষয়টি নিয়ে পুলিশের কাছে অভিযোগ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। কিন্তু মোঃ জায়েদুর ইসলাম তার বাবা মোঃ জাহেরের  হুমকিতে ওইদিন রাতেই বাড়ি থেকে অন্যত্র চলে যেতে বাধ্য হয় বৃদ্ধ দাদি। নিয়ে পরিবারের অন্য ভাইদের সঙ্গে জায়েদুরের বাবার ঝগড়াঝাটি হয়। ঐদিন রাত এগারোটার দিকে ভাঙ্গুড়া থানা পুলিশ খবর পেয়ে ধর্ষিতার বাড়িতে যায়। কিন্তু পুলিশ ধর্ষিতাকে বাড়িতে না পেয়ে এবং কেউ ধর্ষণের অভিযোগ না করায় ধর্ষক আটক না করে চলে আসে।  পুলিশ চলে গেলে ওই রাতেই জায়েদুর তার তার বাবা-মা সহ বাড়ি থেকে পালিয়ে অন্যত্র চলে যায়।

 

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিষয়ে ধর্ষিতার এক ছেলে জানান, বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে মুখে গামছা গুঁজে দিয়ে জোরপূর্বক আমার বড় ভাইয়ের ছেলে তার দাদিকে ধর্ষণ করে। বিষয়টি নিয়ে আমরা থানা পুলিশকে জানাই। কিন্তু পুলিশ আসার আগেই জায়েদুরের হুমকিতে মা পালিয়ে যায়। কিন্তু আমরা এর বিচার চাই।

 

বিষয়ে ভাঙ্গুড়া থানার ওসি মোঃ আনোয়ার হোসেন বলেন, ঘটনা জানার পরই আমি নিজেই পুলিশ ফোর্স নিয়ে ধর্ষিতার বাড়িতে যাই। কিন্তু এর আগেই ধর্ষিতা বাড়ি থেকে উধাও হয়ে যায়। ফলে ভিকটিম নিখোঁজ থাকায় বিষয়ে মামলা দায়ের করা সম্ভব হয়নি। তাই ধর্ষককে আটক করা হয়নি। তবে কেউ লিখিত অভিযোগ দিলে ধর্ষণের অভিযোগের বিষয়ে যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


শেয়ার করুন