Wednesday, August 26, 2020

ফরিদপুরে ধানের বস্তার ভারে কৃষকের মৃত্যু

চাল তৈরি করতে দেড় মণ ওজনের ধানের বস্তা নিয়ে চালকলে যাচ্ছিলেন কৃষক সাদিকুল ইসলাম (৩২)। পথিমধ্যে বস্তার ভারে ঘাড়ে প্রচণ্ড আঘাত পান তিনি। মুমূর্ষু অবস্থায় স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। 
এরপর দুর্ঘটনার তিন দিন পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে তিনি মারা যান। ঘটনাটি ঘটেছে পাবনার ফরিদপুর উপজেলার মাছুয়াঘাটা গ্রামে। সাদিকুল ওই গ্রামের রঞ্জু সরদারের ছেলে ও দুই সন্তানের জনক।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সাদিকুল দেড় মণ ওজনের ধানের বস্তা নিয়ে গত শনিবার চাল তৈরির উদ্দেশ্যে পাশের নারায়ণপুর বাজারের চালকলে যাচ্ছিল। কিন্তু পথিমধ্যে তিনি বস্তার ভারে ঘাড়ে প্রচণ্ড আঘাত পান। এতে তিনি গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন। তখন স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে ফরিদপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। কিন্তু সাদিকুলের অবস্থা সংকটাপন্ন হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করেন। সেখানে তিন দিন চেতনাহীন থেকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল মঙ্গলবার বিকালে মারা যান। পরে রাতে মরদেহ নিয়ে এসে গ্রামে দাফন করা হয়।
সাদিকুলের প্রতিবেশী আবু তালহা জানান, হতদরিদ্র কৃষক সাদিকুল দিনমজুরের কাজ করে ও মানুষের জমি বর্গা চাষ করে পরিবারের ভরণপোষণ চালাতেন। এখন তার অকাল মৃত্যুতে দুই শিশু সন্তানসহ তার স্ত্রীর খাবার জোগানো কষ্টকর হয়ে দাঁড়াবে। প্রতিবেশী ও স্বজনরা সহযোগিতা করলে তবেই পরিবারটি বাঁচবে।

শেয়ার করুন