Friday, July 31, 2020

পাবনার সাংবাদিকতার অন্যতম পথিকৃৎ শফিউর রহমান খান


পাবনার সাংবাদিকতা, শিল্প, সাহিত্য সাংস্কৃতিক অঙ্গনের মানুষের মনি কোঠায় আজও স্মৃতিতে অম্লান জেলার সাংবাদিকতার অন্যতম পথিকৃত শফিউর রহমান খান।
আজ ৩১ জুলাই তার ১৯তম মৃত্যুবার্ষিকী।
১৯৩১ সালের ২৩ ডিসেম্বর পাবনা জেলার বেড়া উপজেলার টাংবাড়ী গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। নানা দুর্যোগ প্রতিকুল অবস্থার মধ্যে দিয়ে শিক্ষা জীবন শেষ করেন।
১৯৮০ সালে পাবনা থেকে সর্বপ্রথমপাবনা বার্তানামে একটি সাপ্তাহিক পত্রিকা প্রকাশ করেন। এর পর ১৯৯১ সালে পাবনা থেকে প্রথম দৈনিক পত্রিকাদৈনিক ইছামতিপ্রকাশ করেন।
দিনটি পালন উপলক্ষে মরহুমের কবর জেয়ারত, দোয়া মিলাদ মাহফিলসহ নানা কর্মসুচি গ্রহণ করা হয়েছে। ছাড়া সকাল এগারোটায় পাবনা প্রেসক্লাবে তার স্মরণে শ্রদ্ধা জানানো হবে।
মাওলানা ভাসানীর আদর্শে উদ্বুদ্ধ শফিউর রহমান খান সাধারণ মানুষের কথা তুলে ধরতে উদ্যোগী ছিলেন জীবনের শুরু থেকেই। তিনি সারাজীবন মানুষের জন্য কাজ করেছেন।
মানবতাবাদী চেতনায় উজ্জীবিত মানুষটি জীবনে কোনদিন অন্যায়ের সাথে আপোষ করেননি। শফিউর রহমান খানের ছদ্মনাম (লেখক নাম) ছিল এস আর খান।
১৯৫৩ থেকে ৫৮ সাল পর্যন্ত দৈনিক ইত্তেহাদের ফরিদপুরস্থ নিজস্ব সংবাদদাতা, দৈনিক মিল্লাত, দৈনিক সংবাদ, দৈনিক আওয়াজ পত্রিকায় ফরিদপুরস্থ নিজস্ব সংবাদদাতা ছিলেন।
১৯৭৪ সালে পাবনা জেলা পরিষদ কর্তৃক প্রকাশিত পাবনা পত্রিকা এবং একই বছর ঢাকার সাপ্তাহিক আমাদের কথা ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক ছিলেন। তিনি ১৯৮৪ সালে সাংবাদিকতায় যমুনা সাহিত্য পুরস্কার, ১৯৯২ সালে পাবনা জেলা সাহিত্য পরিষদের ভাস্কর উপাধি এভং ১৯৯৪ সালে সাংবাদিকতায় অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ উত্তরণ পুরস্কার পান।
শফিউর রহমান খান বাংলাদেশ মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থা, পাবনা জেলা শাখার প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি সাধারন সম্পাদক, আঞ্জুমান মফিদুল, পাবনা শাখার প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি, বাংলাদেশ এডিটরস ফোরামের সদস্য, ভাসানী স্মৃতি পরিষদ, পাবনা জেলা শাখার সভাপতি, বাংলাদেশ আঞ্চলিক সংবাদপত্র পরিষদের কেন্দ্রিয় সহসভাপতি এবং পাবনা প্রেসক্লাবের সদস্য ছিলেন।
ছাড়া রাজনৈতিক জীবনে তিনি মাওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাসানীর অনুসারী ছিলেন। মাওলানা ভাসানী শফিউর রহমান খানকে নিজের সন্তানের মত স্নেহ করতেন।
সাবেক প্রধানমন্ত্রী কাজী জাফর আহমেদ, সাবেক মন্ত্রী সিরাজুল হোসেন খান, আব্দুল মান্নান ভূইয়াসহ অনেক প্রখ্যাত বাম ধারার রাজনেতিক নেতৃবৃন্দের সঙ্গে তার সংখ্যতা ছিল।
শফিউর রহমান খান পাবনায় প্রথম সংবাদপত্র প্রকাশ করে পাবনার ইতিহাসে স্থান করে নিয়েছেন। ছাড়া বর্তমান প্রজন্মে যে সব সাংবাদিক রয়েছেন তার অধিকাংশই শফিউর রহমান খানের কাছে সাংবাদিকতায় হাতে খড়ি নিয়েছেন।
তাই এদিনটিকে পাবনার সাংবাদিকরা গভীর শ্রদ্ধার সঙ্গে পালন করে তাকে।
লেখক : এবিএম ফজলুর রহমান, সভাপতি, পাবনা প্রেসক্লাব স্টাফ রির্পোটার, দৈনিক সমকাল, পাবনা।

শেয়ার করুন