Friday, July 10, 2020

নৌ দুর্ঘটনা এড়াতে ভাঙ্গুড়ায় পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির সাইনবোর্ড ও মাইকিং

(অনলাইন ডেস্ক)
পাবনা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর ভাঙ্গুড়া সাব জোনাল অফিসের বিল এলাকাগুলোতে নৌযান দুর্ঘটনা এড়াতে সর্তকীকরণ জন গুরুত্বপূর্ণ দৃশ্যমান স্থানগুলিতে সাইন বোর্ড টাঙিয়ে দেওয়া ও মাইকিং করে সর্তক করা হয়েছে।

ভাঙ্গুড়া সাবজোনাল অফিসের ‘দুর্যোগে আলোর গোরিলাঽ টিম কর্তৃক গত পনেরো দিন ধরে তাদের অফিসিয়াল কাজের ফাঁকে ফাঁকে উপজেলার বিভিন্ন জনগুরুত্বপূর্ণ স্থান ও সম্ভাব্য দুর্ঘটনা ঘটতে পারে এমন স্থানগুলিতে এই সর্তকীকরণ সাইন বোর্ড টাঙানো ও মাইকিং করে সর্তক করা হয়।

পাবনা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর ভাঙ্গুড়া সাবজোনাল অফিস সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার খানমরিচ, দিলপাশার ও অষ্টমনিষা ইউনিয়নের বেশিরভাগ এলাকা চলনবিল অঞ্চলের অন্তর্গত হওয়াতে এবারের আগাম বন্যার কারণে ঐ সকল এলাকার বৈদুতিক খুঁটি গুলি অনেকাংশে পানির নিচে তলিয়ে যায়।

ফলে বৈদুতিক তার গুলি পানির কাছাকাছি চলে আসে এবং নৌযান চালকদের অসর্তকতার ফলে ঘটতে পারে দুর্ঘটনা।

তাই পাবনা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির ভাঙ্গুড়া সাব জোনাল অফিস ‘দুর্যোগে আলোর গোরিলাঽ টিম কর্তৃক ঐ সকল চিহ্নিত স্থানে লাল নিশান টাঙানো, খানমরিচ, দিলপাশার ও অষ্টমনিষা ইউনিয়ন চেয়ারম্যান ও নৌকার মাঝিদের সাথে মতবিনিমিয় করে তাদের দুর্ঘটনা এড়িয়ে চলার বিষয়টি অবগত করে সর্তক করা, মাইকিং করা ও জন গুরুত্বপূর্ণ দৃর্শ্যমান স্থান সমূহে সর্তকীকরণ সাই বোর্ড টাঙানো হয়েছে।

এরই মধ্যে বিলাঞ্চলের কৃষি কাজে ব্যবহৃত সেচ পাম্পগুলির লাইন বিছিন্ন করে সে গুলিকে নিরাপদ স্থানে রাখা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, চলনবিল অঞ্চলের এই এলাকাগুলোতে বর্ষা মৌসুমে বিভিন্ন স্থান থেকে নৌযান নিয়ে আগত পর্যটক ও যাত্রী নিয়ে চলাচলকারী নৌযানের মাঝিদের অসর্তকতার কারণে বিগত বছরগুলোতে দুর্ঘটনা ঘটেছে।


এবিষয়ে পাবনা পল্লী বিদ্যুৎ-১ এর ভাঙ্গুড়া সাবজোনাল অফিসের এজিএম মোঃ মনির হোসেন বলেন, বিলাঞ্চলে বৈদ্যুতিক তারের সাথে আর একটিও যেনো দুর্ঘনা না ঘটে সে কারণে পর্যটকদের নৌযান ও যাত্রী বহনকারি নৌযান চালকদের সর্তক করার লক্ষ্যে নিয়মিত মাইকিং, জনগুরুত্বপূর্ণ দৃশ্যমান স্থান সমুহে সর্তকীকরণ সাইনবোর্ড ও লাল কাপড় টাঙানোর পাশাপাশি মাঝিদের সাথে বৈঠক করে তাদেরকে সর্তক করা হয়েছে।

শেয়ার করুন