Tuesday, July 28, 2020

ভাঙ্গুড়ায় করোনা ঝুঁকি নিয়েই শ্বাসকষ্টের রোগীকে সেবা দিলেন চিকিৎসক

পাবনার ভাঙ্গুড়ায় জ্বর, কাশি ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে মনজুর কাদির বাবু নামে একজন স্কুলের কর্মচারী মারা গেছেন। তিনি ভাঙ্গুড়া পৌর শহরের সদ্য এমপিওভুক্ত মমতাজ মোস্তফা আইডিয়াল স্কুলের অফিস সহকারি ও নৌবাড়ীয়া মহল্লার বাসিন্দা। সোমবার মধ্যরাতে ভাঙ্গুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। এর আগে মনজুর কাদের চিকিৎসার জন্য পাবনার বিভিন্ন হাসপাতালে ঘুরেও চিকিৎসা পাননি। পরে ভাঙ্গুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসকরা নিজেদের নিরাপত্তার কথা না ভেবে স্বাস্থ্য ঝুঁকি নিয়েই মনজুর কাদিরকে সাধ্যমত চিকিৎসা সেবা দিয়েছেন।
পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, ভাঙ্গুড়া পৌর শহরের নৌবাড়ীয়া মহল্লার বাসিন্দা ও মমতাজ মোস্তফা আইডিয়াল স্কুলের অফিস সহকারী মনজুর কাদির গত শনিবার শরৎনগর হাট থেকে কুরবানীর পশু কিনে বাড়ি ফিরে জ্বর ও কাশিতে আক্রান্ত হন। এ কারণে তিনি পাবনার একজন মেডিসিন বিশেষজ্ঞের পরামর্শে চিকিৎসা নেন। এরপরেও তার শ্বাসকষ্ট শুরু হলে সোমবার পাবনার বিভিন্ন হাসপাতালে ঘুরেও চিকিৎসা পাননি। পরে ভাঙ্গুড়া ফিরে এসে পৌর মেয়র গোলাম হাসনাইন রাসেলের সহযোগিতায় ভাঙ্গুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তিি হন। সেখানে চিকিৎসকরা কোনো প্রকার স্বাস্থ্যসুরক্ষা ও নিরাপত্তা ছাড়াই ঝুঁকি নিয়ে মঞ্জুর কাদিরকে চিকিৎসা দেন। পরে তাঁকে অক্সিজেন দেয়া হয়। এ অবস্থায় রাতে তিনি মারা যান। তবে মৃত্যুর আগেই তার নমুনা সংগ্রহ করা হয়। এদিকে মঙ্গলবার দুপুরে স্বাস্থ্যবিধি মেনে মনজুর কাদিরকে শহরের নৌবাড়ীয়া মহল্লার সামাজিক কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে। এছাড়া মনজুর কাদিরের পরিবারের দশজন সদস্যের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে সবাইকে কোয়ারান্টিনে থাকতে বলা হয়। সার্বিক পরিস্থিতিিি দেখভাল করে পৌর মেয়র গোলাম হাসনাইন রাসেল।
উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার হালিমা খানম বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, করোনা উপসর্গ নিয়ে ওই স্কুল কর্মচারীকে সাধ্যমত চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। এরপরেও তিনি মৃত্যুবরণ করেন। তাই তার নমুনা সংগ্রহ করে করোনা পরীক্ষার ল্যাবে পাঠানো হয়েছে। ফলাফল পাওয়ার পরে জানা যাবে তিনি করোনা আক্রান্ত ছিলেন কিনা।
ভাঙ্গুড়া পৌর মেয়র গোলাম হাসনাইন রাসেল বলেন, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসকরা নিজেদের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে মনজুর কাদিরকে চিকিৎসা দিয়ে মানবিকতার দৃষ্টান্ত রেখেছেন। করোনার এই মহামারীতে আমরা সবাই একে অপরের পাশে দাঁড়াবো। ভাঙ্গুড়ার প্রতিটি মানুষের পাশে থেকে এই যুদ্ধে জয়ী হতে চাই।

শেয়ার করুন