Monday, June 8, 2020

দূরপাল্লার বাসে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের অভিযোগ

ভাঙ্গুড়া  প্রতিনিধি 
পাবনার ভাঙ্গুড়া বাসস্ট্যান্ড থেকে আন্ত জেলা ও বিভাগীয় শহরে চলাচলকারী বাসে যাত্রীসংকট থাকলেও ঢাকাগামী বাসগুলোতে যাত্রীদের প্রচুর চাপ রয়েছে। আর এই সুযোগে স্থানীয় শ্যামলী পরিবহন কাউন্টার কর্তৃপক্ষ যাত্রীদের কাছ থেকে সরকারি নির্দেশ অমান্য করে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ নিয়ে যাত্রীদের মধ্যে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, ভাঙ্গুড়ার বড়ালব্রিজ রেলস্টেশন থেকে ছয়টি আন্ত নগর ট্রেন ঢাকায় চলাচল করে। ট্রেন যাতায়াতে ভাড়া এবং সময় সাশ্রয়ের কারণে অধিকাংশ যাত্রী ট্রেনে ঢাকায় যাতায়াত করে। কিন্তু করোনা পরিস্থিতির কারণে বর্তমানে মাত্র দুটি ট্রেন এই স্টেশনে যাত্রাবিরতি করছে। তাতে এই স্টেশন থেকে শতাধিক আসনের বিপরীতে মাত্র ২৫টি টিকিট অনলাইনে বিক্রি হচ্ছে। বাধ্য হয়ে যাত্রীরা ভাঙ্গুড়া বাসস্ট্যান্ড থেকে ঢাকাগামী বাসের দিকে ঝুঁকছে। ভাঙ্গুড়া থেকে বর্তমানে বিভিন্ন কম্পানির অন্তত ছয়টি বাস ঢাকা চলাচল করছে। কিন্তু এর মধ্যে শ্যামলী পরিবহনের দুটি বাসের কাউন্টার থেকে সরকার নির্ধারিত ভাড়ার চেয়ে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছে যাত্রীরা।
ভুক্তভোগী যাত্রীদের অভিযোগ, ভাঙ্গুড়া থেকে ঢাকাগামী বাসগুলোর ভাড়া আগে ৪০০ টাকা ছিল। এ ক্ষেত্রে সরকার নির্ধারিত নিয়মে ৬০ শতাংশ ভাড়া বৃদ্ধিতে ৬৪০ টাকা আদায় করার কথা টিকিট কাউন্টারে। কিন্তু শ্যামলী পরিবহনের টিকিট কাউন্টার কর্তৃপক্ষ সেই ভাড়া ৮০০ টাকা করে আদায় করছে। কোনো যাত্রী এর প্রতিবাদ করলে তার কাছে টিকিট বিক্রি করছে না কাউন্টার কর্তৃপক্ষ।
উপজেলার মণ্ডুতোষ গ্রামের শের মাহমুদ নামের এক যাত্রী বলেন, ‘লকডাউন ছেড়ে যাওয়ার পরে আমি শ্যামলী টিকিট কাউন্টার থেকে টিকিট কিনতে গেলে তারা ৮০০ টাকা দাবি করে। এ নিয়ে তাদের সঙ্গে আমার বাগিবতণ্ডা হয়। পরে অন্য কম্পানির বাসে টিকিট না পেয়ে ৮০০ টাকা দিয়েই শ্যামলী বাসের টিকিট কিনতে বাধ্য হই।’
এ বিষয়ে শ্যামলী পরিবহনের কাউন্টারের পরিচালক ও ভাঙ্গুড়া মোটর শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি মোকসেদ আলী বলেন, ‘টিকিট কাউন্টারে কর্মরত ছেলেরা যাত্রীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত টাকা ভাড়া নিয়েছে। বিষয়টি জানার পর কাউন্টারে কর্মরত সবাইকে অতিরিক্ত ভাড়া না নিতে বলেছি।’
ভাঙ্গুড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ আশরাফুজ্জামান বলেন, পরিবহনে যাত্রীদের কাছ থেকে সরকার নির্ধারিত ভাড়ার চেয়ে অতিরিক্ত টাকা নেওয়ার কোনো সুযোগ নেই। এ বিষয়ে খোঁজখবর নিয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শেয়ার করুন