Saturday, May 23, 2020

পাবনায় ১৬ বস্তা সরকারি চাল উদ্ধার




অনলাইন ডেস্ক
পাবনার ফরিদপুরে ৪০০ কেজি সরকারি চাল উদ্ধার হয়েছে এক ব্যক্তির বাড়ি থেকে। উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা শনিবার বিকেলে অভিযান চালান উপজেলার বৃলাহিড়ীবাড়ি ইউনিয়নের এরশাদনগর গ্রামে। সেখানে আফসার আলী নামে এক ব্যক্তির বাড়ি থেকে চাল উদ্ধার হয়। আফসার আলী পলাতক থাকায় তার মেয়ে আফিয়া সুলতানাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে।

সূত্র জানায়, শনিবার দুপুরে ফরিদপুর উপজেলার এরশাদনগর গ্রামের নদীর ঘাটে কয়েকজন বিক্রি করেন বিপুল পরিমাণ চাল। সরকারি বস্তাসহ চালগুলো আনা হয় নৌকাযোগে। ঘাটে উপস্থিত লোকজন কমদামে এসব চাল কেনেন। এরশাদনগর গ্রামের আফসার আলী একাই কেনেন ১৬ বস্তা (প্রতি বস্তায় ৩০ কেজি) চাল। বাড়িতে চাল নিয়ে তিনি বস্তা পরিবর্তন করেন। এ ঘটনা ছড়িয়ে পড়লে তা প্রশাসনের নজরে আসে। সে সূত্রেই চলে অভিযান।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আহম্মদ আলী বলেন,‘এরশাদনগর গ্রামের এক ব্যক্তির বাড়ি থেকে সরকারি কর্মসূচির আনুমানিক ৪০০ কেজি চাল উদ্ধার করা হয়েছে। তবে এই চাল কোথা থেকে এসেছে সে বিষয়ে এখন পর্যন্ত কিছু জানা যায়নি। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।’

এদিকে অভিযানকালে বাড়িটিতে চালের পাশাপাশি পাওয়া যায় সরকারি কর্মসূচির চালের খালি বস্তা। সে ব্যাপারে আটক আফিয়া সুলতানা দাবি করেছেন পার্শ্ববর্তী ভাঙ্গুড়া উপজেলার দিলপাশার ইউনিয়নের চেয়ারম্যান অশোক কুমার ঘোষ প্রণো চাল বিক্রি করেছেন। এরশাদনগরের আমজাদ হোসেন নামে এক ব্যক্তির মাধ্যমে এসব চাল বিক্রি করা হয়। সেখান থেকেই আফিয়ার বাবা চাল কিনেছেন কবুতরকে খাওয়াবেন বলে।

সরকারি সহায়তার চাল বিক্রির অভিযোগ অস্বীকার করে ইউপি চেয়ারম্যান অশোক কুমার ঘোষ প্রণো বলেন, ‘সকল কর্মসূচির চাল বিতরণে স্বচ্ছতা নিশ্চিত করা হয়ছে। আফসার আলীর বাড়ি থেকে উদ্ধার করা চালের বিষয়ে আমি অবগত নই। এসব চাল সুবিধাভোগীদের কাছ থেকে তারা কিনতে পারে।

শেয়ার করুন